সিদ্ধান্ত গ্রহণ কি? সিদ্ধান্ত গ্রহণ কাকে বলে? সিদ্ধান্ত গ্রহণ বলতে কী বোঝায়?

সিদ্ধান্ত গ্রহণ কি: যে কোন সমস্যার সমাধান এবং কর্মপন্থা গ্রহণে বিভিন্ন উপায়ে সর্বোত্তম বিকল্প বাছাই করা হচ্ছে সিদ্ধান্ত গ্রহণ। আমাদের জীবনের প্রতিটি ক্ষেত্রে প্রতিটি কাজের জন্য সিদ্ধান্ত গ্রহণ খুবই গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত গ্রহণ ছাড়া কোন কাজ সম্পন্ন হয় না। 

সিদ্ধান্ত গ্রহণের সময় যে কোন কর্ম বিষয়ে বিভিন্ন সমস্যার সমাধান অনুসন্ধান করতে হবে এবং কর্মপন্থা গ্রহণ করতে হবে।

আর সমস্যার সমাধান করার জন্য বিকল্প কোনো ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে এবং ওই বিকল্প ব্যবস্থারও যাতে কোন বিকল্প ব্যবস্থা থাকে। 

কেননা ওই বিকল্প ব্যবস্থার যদি বিকল্প ব্যবস্থা থাকে তাহলে পরবর্তীতে সমস্যা হলে তার সংশোধন করা যাবে। আর সমস্যার সমাধান করার মাধ্যমে কাজটি খুবই সহজভাবে সংঘটিত করা যাবে এবং সঠিক সিদ্ধান্ত গ্রহণ করার মাধ্যমে ভুল হওয়া সম্ভাবনা কম থাকবে।

সিদ্ধান্ত গ্রহণ কি
সিদ্ধান্ত গ্রহণ কি?

আর আমাদেরকে একটা বিষয় মনে রাখতে হবে যে আমরা যখন বিকল্প গ্রহণ করব তখন সর্বোত্তম বিকল্প গ্রহণ করব।

কেননা খরচা বেশি হলে সর্বোত্তম বিকল্প গ্রহণ করা সবচেয়ে বেশি ভালো এবং সবচেয়ে লাভজনক প্রমাণিত হবে।

যে কোন ক্ষেত্রে সর্ব উত্তম বিকল্প গ্রহণ করা হলে সে কাজে ভূল হওয়ার সম্ভাবনা সবচেয়ে কম থাকবে। আর যদি সর্বোত্তম বিকল্প গ্রহণের খরচা বেশি হয় তবুও এটি গ্রহণ করা উচিত কেননা বারবার একটি বিষয়ের জন্য খরচা করার চেয়ে একবারে খরচা করা বেশি বুদ্ধিমানের কাজ। 

আমাদেরকে যেকোন সিদ্ধান্ত গ্রহণের জন্য তার বিকল্প ব্যবস্থা রাখতে হবে এবং তার সর্বোত্তম বিকল্প গ্রহণ করতে হবে।

সিদ্ধান্ত গ্রহণে কখনো তাড়াহুড়া করা যাবে না চিন্তা ভাবনা করে সঠিক সিদ্ধান্ত গ্রহণ করতে হবে। 

সিদ্ধান্ত গ্রহণ কাকে বলে? 

সমস্যা সমাধানের জন্য কর্মপন্থা গ্রহণ এবং বিকল্প থেকে সর্বোত্তম বিকল্প ব্যবস্থা গ্রহণ করাকে সিদ্ধান্ত গ্রহণ বলে। সিদ্ধান্ত গ্রহণ কি এবং সিদ্ধান্ত গ্রহণ কাকে বলে এ দুটি মূলত একই বিষয় তাই এই দুইটি প্রশ্নের জন্য একটি উত্তর হবে।

সর্বক্ষেত্রে সর্ব লাইনে প্রতিটি কাজ করার জন্য অবশ্যই অবশ্যই সিদ্ধান্ত গ্রহণ খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

আমরা যদি কোন কাজের জন্য সিদ্ধান্ত গ্রহণ না করতে পারি তাহলে আমরা ঐ কাজের সঠিক সমাধানে কখনো আসতে পারবো না।

আর আমাদের গ্রহণ করতে সিদ্ধান্ত যদি ভুল হয়ে থাকে তাহলে সেটি হবে আমাদের সবচেয়ে বড় ভুল।

তাই আমাদেরকে সিদ্ধান্ত গ্রহণের সময় অবশ্যই অবশ্যই সর্বোত্তম বিকল্প সিদ্ধান্ত গ্রহণ করতে হবে যাতে করে ভুল না হয়। 

কেননা আমরা জানি যে সঠিক সিদ্ধান্ত গ্রহণ কোন কাজকে অনেক সহজ করে তুলতে পারে। সঠিক সিদ্ধান্ত গ্রহণ করার মাধ্যমে কোন কাজে ক্ষতি হওয়ার সম্ভাবনা কম থাকে এবং তা অনেকদিন পর্যন্ত ব্যবহার করা যায় ও সে অনুযায়ী কাজ করা যায়। 

তাই আমাদেরকে যেকোনো সিদ্ধান্ত গ্রহণ করার জন্য অবশ্যই অবশ্যই ভালোমতো চিন্তা করতে হবে। একটু বেশি সময় ধরে চিন্তা ভাবনা করার পর সবচেয়ে ভালো এবং সবচেয়ে উত্তম সমাধানটি বাছাই করতে হবে এবং তা গ্রহণ করতে হবে। 

আর আমরা যদি সিদ্ধান্ত ভুল গ্রহণ করে থাকি তাহলে সেটি হবে আমাদের জন্য নিন্দা জনক এবং ক্ষতির বিষয়।

যেটি আমাদের যেকোন বিষয়ে সংশয় সৃষ্টি করেবে, যা হবে আমাদের গ্রহণ কৃত কাজের জন্য বেশ ক্ষতিকর এবং হুমকি স্বরূপ। 

সিদ্ধান্ত গ্রহণ বলতে কী বোঝায়?

এই সিদ্ধান্ত গ্রহণের জন্য আপনাকে ছয়টি বিষয়ের উপর লক্ষ্য রাখতে হবে ১.) সমস্যা চিহ্নিতকরণ ২.) অগ্রাধিকার নির্ধারণ ৩.) তথ্য ও উপাত্ত সংগ্রহ ৪.) বিকল্প উদ্ভাবন ৫.) বিকল্প মূল্যায়ন এবং ৬.) সর্বোত্তম বিকল্প গ্রহণ। সিদ্ধান্ত গ্রহণের জন্য এ বিষয়গুলো আপনার মাথায় থাকতে হবে। 

সিদ্ধান্ত গ্রহণের জন্য অবশ্যই আপনাকে সর্বপ্রথম যে বিষয়ে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করবেন তার সমস্যা চিহ্নিত করতে হবে।

অর্থাৎ আপনি যে বিষয়ে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করতে যাচ্ছেন তার কোন জায়গায় সমস্যা রয়েছে তা চিহ্নিত করতে হবে। 

সমস্যা চিহ্নিত করার পর সমস্যার অগ্রাধিকার নির্ধারণ করতে হবে অর্থাৎ কোন সমস্যাটি বেশি জটিল তা নির্ধারণ করতে হবে।

অগ্রাধিকার নির্ধারণে জটিল সমস্যা থেকে ধীরে ধীরে সহজ সমস্যার সমাধান করতে হবে কিন্তু প্রথমে জটিল সমস্যার সমাধান। 

যে বিষয়ে সমস্যা চিহ্নিত হয়েছে সেই সমস্যার বিষয়ক তথ্য এবং উৎপাদ্য সঠিকভাবে সংগ্রহ করতে হবে।

সমস্যা বিষয়ক সঠিকভাবে তথ্য-উপাতা সংগ্রহ করার উপর অনেকটা বেশি পরিমাণ নির্ভর করবে সমস্যার সমাধান। 

সমস্যার বিষয়ে তথ্য এবং উপাত্ত সংগ্রহ করার পর ওই সমস্যা বিষয়ক তথ্য ও উপাত্তকে মূল্যায়ন করতে হবে।

মূল্যায়ন করার মাধ্যমে সমস্যার বিকল্প ব্যবস্থার উদ্ভাবন করতে হবে এবং বিকল্প ব্যবস্থা মূল্যায়ন করতে হবে। 

এরপর বিকল্প ব্যবস্থাসমূহকে ভালোভাবে মূল্যায়ন করার পর সর্বোত্তম বিকল্প ব্যবস্থাকে গ্রহণ করতে হবে।

আর সর্বোত্তম বিকল্প ব্যবস্থা গ্রহণ করার মাধ্যমে ভুল হওয়ার সম্ভাবনা সবচেয়ে কম থাকবে। 

এই পোস্টে আমি আপনাদের বিকল্প ব্যবস্থা কি এ বিষয় সম্পর্কে সম্পূর্ণ জ্ঞান প্রদান করেছি। যাতে আপনারা বিষয়টি ভালোভাবে বুঝতে পারেন আর বুঝতে পারার মাধ্যমে সঠিকভাবে যে কোন সমস্যার বিকল্প ব্যবস্থা গ্রহণ করতে পারেন।

আরও পড়ুন: এক ইঞ্চি সমান কত সেন্টিমিটার?

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Scroll to Top