রসায়ন ইংরেজি কি? রসায়ন In English

আজকের পোষ্টের মাধ্যমে আপনারা জানতে পারবেন: রসায়ন ইংরেজি কি, রসায়ন In English, রসায়নকে ইংরেজিতে কী নামে ডাকা হয় ইত্যাদি। যদিওবা আমাদের মাঝে ইতিমধ্যে অনেকে রসায়নের ইংরেজি সম্পর্কে অবগত।

কিন্তু তবুও এমন কিছু ছাত্র পাওয়া যায় যারা রসায়ন বই সম্পর্কে নতুন এবং এর ইংরেজি সম্পর্কে অবগত না। তাই আজকের পোস্টটি বিশেষভাবে তাদের জন্য উপকারী হতে চলেছে কেননা, এই পোস্টটিতে আমরা রসায়নের সঠিক ইংরেজি তুলে ধরব।

রসায়ন ইংরেজি কি
রসায়ন ইংরেজি কি?

রসায়ন ইংরেজি কি: রসায়নের ইংরেজি হলো Chemistry (বাংলা উচ্চারণ: কেমিস্ট্রি)। অর্থাৎ আমরা রসায়ন বইটিকে বা রসায়নকে ইংরেজি নামে কেমিস্ট্রি (Chemistry) বা কেমিস্ট্রি (Chemistry) বই নামটি দিয়ে প্রায় ডেকে থাকে।

আপনি যদি ইতিমধ্যে না জেনে থাকতেন রসায়নের ইংরেজিকে তাহলে আজকের এই পোস্টটি থেকে জানুন।

আজকের এই পোস্টটিতে আমরা সঠিক মত রসায়নের সঠিক ইংরেজি তুলে ধরেছে এবং রসায়নের সঠিক ইংরেজি হচ্ছে কেমিস্ট্রি।

রসায়ন কি ধরনের বই?

আমরা তো রসায়নের ইংরেজি সম্পর্কে জানলাম কিন্তু এখন প্রশ্ন হচ্ছে রসায়ন কি ধরনের বই। আসলে অনেকেই আমরা আছি যারা রসায়ন কি ধরনের বই এই বিষয়টি সম্পর্কে অবগত না থাকার কারণে রসায়নের সম্পূর্ণ জ্ঞান অর্জন করতে পারি না।

রসায়ন কি ধরনের বই, তা নিচে উল্লেখ করা হলো:

  • রসায়ন হচ্ছে বিজ্ঞানের নতুন শাখা নিয়ে গঠিত বা পৃথক শাখা নিয়ে গঠিত একটি বই।
  • রসায়ন হচ্ছে এমন এক ধরনের বই যেখানে পদার্থের গঠন, ধর্ম এবং পরিবর্তন নিয়ে আলোচনা হয়।
  • বিজ্ঞানের শাখা রসায়ন পরমাণুর ভেতরের বিভিন্ন ভৌত ও রাসায়নিক পরিবর্তন নিয়ে আলোচনা করে।
  • মৌলের বিভিন্ন ধরনের উপস্থিতি, অনুপস্থিতি এবং পরিবর্তন নিয়ে রসায়নে আলোচনা করা হয়।
  • যৌগ গঠন, যৌগের বৈশিষ্ট্য নির্ণয়, পৃথকীকরণ সহ বিশেষ কিছু ক্ষেত্রে নিয়ে রসায়নে আলোচনা হয়।

এগুলো ছিল কিছু ব্যাখ্যা যে ব্যাখ্যাগুলো দ্বারা স্পষ্টভাবে বোঝা যায় রসায়ন কি ধরনের বই বা কি নিয়ে আলোচনা করা হয়।

তাই আপনারা যদি এই বিষয়টি সম্পর্কে না জেনে থাকতেন তাহলে অবশ্যই আমাদের এই পোস্টটি আপনার জন্য সাহায্যপূর্ণ।

শেষ কথা:

রসায়ন ইংরেজি কি এবং রসায়ন কি ধরনের বই এ বিষয়টি সম্পর্কে আমাদের সকলের ধারণা রাখতে হবে। আর সকলেই যেন এই বিষয়টি সম্পর্কে স্পষ্ট ধারণা লাভ করতে পারে এই উদ্দেশ্যে আমাদের আজকের পোস্টটি তৈরি হয়েছে।

তবে মনে রাখবেন যে রসায়ন শুধুমাত্র কয়েকটি বিষয়ের উপর আলোচনা করে এমন ভুলেও মনে করবেন না।

কেননা রসায়নের গড় হিসাব এবং গভীরতা অনেক বেশি এবং এই রসায়ন ব্যবহার করে বিশেষ কিছু বিজ্ঞান গঠিত হয়েছে।

অর্থাৎ রসায়নের বিভিন্ন শাখা রয়েছে এবং রসায়নের এই শাখা গুলোর মধ্যে আরও বিশেষ কিছু বিষয় নিয়ে আলোচনা হয়। তাই আমাদেরকে সবকিছু ভালোভাবে বোঝার মাধ্যমে রসায়নকে আয়ত্ত করতে হবে এবং রসায়নে আগ্রহী হতে হবে।

বিজ্ঞানের যতগুলো মজাদার বিষয় রয়েছে, সে বিষয়গুলোর মধ্যে রসায়ন হচ্ছে সবচেয়ে বেশি মজাদার বিষয়।

আর আপনি রসায়ন বইটি পড়ে অনেক মজা পাবেন এবং সেই সাথে আপনার বিজ্ঞান নিয়ে পড়ালেখার প্রতি মনোযোগ বৃদ্ধি পাবে।

আরও পড়ুন: ধাতব বন্ধন কাকে বলে?

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *