বাংলাদেশের প্রথম প্রধানমন্ত্রী কে ছিলেন?

বিভিন্ন চাকরির পরীক্ষায় বাংলাদেশের প্রথম প্রধানমন্ত্রী কে ছিলেন, এই বিষয়ে প্রশ্ন স্বাভাবিকভাবে চলে আসে। তবে এই প্রশ্নের উত্তর অনেকে ভুল করে এবং এর ফলে চাকরি পাওয়ার আশঙ্কা কমে যায়, তাই এই প্রশ্নের উত্তর এখানে দিব।

অনেকে মনে করে থাকেন যে, বাংলাদেশের প্রথম প্রধানমন্ত্রী ছিলেন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। আপনিও যদি এটি বিষয়টি চিন্তা করে থাকেন তাহলে, আপনার উত্তর সঠিক হবে না কেননা, বঙ্গবন্ধু ছিলেন প্রথম রাষ্ট্রপতি।

বাংলাদেশের প্রথম প্রধানমন্ত্রী কে ছিলেন
বাংলাদেশের প্রথম প্রধানমন্ত্রী কে ছিলেন?

বাংলাদেশের প্রথম প্রধানমন্ত্রী কে ছিলেন: বাংলাদেশের প্রথম প্রধানমন্ত্রী ছিলেন তাজউদ্দীন আহমেদ, যা মুজিবনগর সরকার নামে পরিচিত ছিল। মুক্তিযুদ্ধ চলাকালীন সময় দেশের ভারসাম্য রক্ষায় মুজিবনগর সরকার গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা ও অবদান রেখেছে।

এই দেশের প্রথম প্রধানমন্ত্রী তাজউদ্দিন আহমেদ ১১ই এপ্রিল ১৯৭১ সাল থেকে ১২ই জানুয়ারি ১৯৭২ সাল পর্যন্ত প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করেছেন।

আর দেশের ভারসাম্য রক্ষায় এবং মুক্তিযুদ্ধের কার্য পরিচালনায় তাজউদ্দিন আহমেদ গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছিলেন।

বাংলাদেশের প্রথম প্রধানমন্ত্রীর বাড়ি কোথায়?

বাংলাদেশের প্রথম প্রধানমন্ত্রী অর্থাৎ তাজউদ্দিন আহমেদের বাড়ি গাজীপুর জেলার কাপাসিয়া দরদরিয়া গ্রামে ছিল। অর্থাৎ তাজউদ্দীন আহমেদের জন্ম এবং শৈশব জীবন দরদরিয়া গ্রামে কেটেছে এবং এটি ছিল তিনার মূল বাড়ি।

আমরা তো জানলাম বাংলাদেশের প্রথম প্রধানমন্ত্রীর বাড়ি কোথায় ছিল, চলুন এবার তার অনুদান গুলো দেখি:

  • বাঙ্গালীদেরকে অনুপ্রেরণা দিতে এবং ঐক্যবদ্ধ করতে মুজিবনগর সরকার অনুদান রেখেছে।
  • অত্যাচারীদের শাসন হতে কিভাবে বাঙালি মুক্তি পাবে তার সঠিক পথ ও সাহায্য করতে অনুদান রেখেছে।
  • ২৫ শে মার্চ কালো রাতের পর জনগণকে আরো বেশি অনুপ্রেরণা দিতে মুজিবনগর সরকার অনুদান রেখেছে।
  • প্রত্যেকটি বাঙালিকে সঠিক প্রশিক্ষণ দিয়ে স্বাধীনতা অর্জন করার লক্ষ্যে মুজিবনগর সরকার অনুদান রেখেছে।
  • স্বাধীনতা অর্জনের উদ্দেশ্যে সাহায্য পাওয়ার সকল পদক্ষেপ নিশ্চিত করতে মুজিবনগর সরকার ভূমিকা রেখেছে।
  • নির্দিষ্ট সময় প্রত্যেকটি বাঙালিকে সঠিক দিকনির্দেশনা প্রদান করতে মুজিবনগর সরকার অনুদান রেখেছে।
  • বাঙ্গালীদের অনুপ্রেরণা বৃদ্ধি করতে এবং বিজয় সুনিশ্চিত করতে বুদ্ধিজীবীদের ব্যবস্থা নিশ্চিত করেছিল মুজিবনগর সরকার।
  • বাঙ্গালীদেরকে যেকোন বিপর্যয়ের হাত থেকে রক্ষা করতে যথাযথ চেষ্টা করেছিলেন মুজিবনগর সরকার।
  • দেশের স্বাধীনতা নিশ্চিত করতে বেশ কয়েকদিন মৃত্যুকে সুনিশ্চিত জেনেও পানাহার থেকেছেন।
  • আবার স্বাধীনতা অর্জনের পর নষ্ট হয়ে যাওয়া এই দেশটিকে পুনরায় নির্মাণ করতে ভূমিকা রেখেছে মুজিবনগর সরকার।

এগুলো ছিল কিছু অনুদান যে অনুদানগুলো আমরা, প্রথম প্রধানমন্ত্রী অর্থাৎ মুজিবনগর সরকার থেকে পেয়েছে। আর এই সকল অনুদানগুলোর জন্যই মূলত আজকে আমরা আমাদের এই স্বাধীন দেশকে উন্নতির ছায়ায় নিয়ে আসতে পেরেছি।

শেষ কথা:

বাংলাদেশের প্রথম প্রধানমন্ত্রী কে ছিলেন এবং তিনার বাড়ি কোথায় ছিল এই প্রশ্নের যথাযথ উত্তর এখানে পাবেন। আজকের লেখাটি সম্পূর্ণরূপে লেখা হয়েছে বাংলাদেশের প্রথম প্রধানমন্ত্রী তাজউদ্দিন আহমেদের অবদান সংযোগ করেন।

যদি আবার আমরা মনে করে বাঙালিরা যুদ্ধ করেছিল বিধায় বাংলাদেশ স্বাধীনতা অর্জন করেছে।

কিন্তু স্বাধীনতা অর্জন করতে বাঙ্গালীদেরকে ঝাপিয়ে পড়তে হয়েছিল, এবং এই অনুপ্রেরণা যুগিয়েছেন প্রথম মুজিবনগর সরকার।

আর তাই বলা যায় যে, স্বাধীনতা অর্জনের পেছনে যেমন অবদান রেখেছিল বাঙালিরা, তেমন অবদান রেখেছে মুজিবনগর সরকার। মুজিবনগর সরকার বলতে মূলত বঙ্গবন্ধু দ্বারা গঠন করা প্রথম সরকারকে বোঝানো হয়।

মুজিবনগর সরকারের গুরুত্বপূর্ণ দুইজন ব্যক্তি অর্থাৎ রাষ্ট্রপতি বঙ্গবন্ধু এবং প্রধানমন্ত্রী তাজউদ্দীন আহমেদ ছিলেন।

আর স্বাধীনতা নিশ্চিত করতে বাংলাদেশের প্রথম রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রী গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছিল।

আরও পড়ুন: তুরস্ক কোন মহাদেশে অবস্থিত?

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *