তুরস্ক কোন মহাদেশে অবস্থিত?

তুরস্ক কোন মহাদেশে অবস্থিত এই বিষয়টির উপর অনেকে অনেক বেশি দ্বিধার মধ্যে থেকে যায় সঠিক উত্তর দিতে। কিছু কিছু ব্যক্তিদের মতে তুরস্ক হচ্ছে এশিয়া মহাদেশের অন্তর্ভুক্ত এবং কিছু কিছু ব্যক্তিদের মতে বলা হয় তুরস্ক হচ্ছে ইউরোপের অন্তর্ভুক্ত।

আর এইরকম দ্বিধার মধ্যে থাকার কারণে অধিকাংশ মানুষ সঠিক মত তুরস্কের মহাদেশের নাম সঠিক মত বলতে পারেনা।

তাই আপনি যেন তুরস্ক কোন মহাদেশের মধ্যে অবস্থিত রয়েছে এটি বলতে পারেন সেজন্য এখানে আমরা তা উল্লেখ করব।

তুরস্ক কোন মহাদেশে অবস্থিত: তুরস্ক এশিয়া মহাদেশের অন্তর্ভুক্ত কিন্তু তুরস্কের কিছু ক্ষুদ্র অংশ ইউরোপ মহাদেশের সঙ্গে সংযুক্ত। অর্থাৎ তুরস্ক মূলত পূর্ব এশিয়ার অন্তর্ভুক্ত একটি দেশ এবং এর মূল কারণ হলো তুরস্কের সিংহভাগ অংশ পূর্ব এশিয়ার সঙ্গে যুক্ত রয়েছে।

তুরস্ক কোন মহাদেশে অবস্থিত
তুরস্ক কোন মহাদেশে অবস্থিত?

আর শুধুমাত্র এতোটুকুর মধ্যেই নয় বরং এরা পূর্ব এশিয়ার মধ্য উপস্থিত মঙ্গোলিয়ার কিছু বিশেষ ঐতিহ্য ধারণ করে রয়েছে।

আর এই সকল বৈশিষ্ট্যের উপর ভিত্তি করে বলা যায়: তুরস্কের সিংহভাগ অংশ এশিয়া মহাদেশের অন্তর্ভুক্ত, তবে কিছু অংশ ইউরোপে রয়েছে।

তাহলে আমরা বলতে পারি যে তুরস্ক হচ্ছে এশিয়া এবং ইউরোপের মধ্যে গঠিত একটি সেতু এবং এর সেতুর দ্বারা ইউরোপ ও এশিয়া যুক্ত। ইউরোপ এবং এশিয়া এ দুটি মহাদেশ পরস্পরের সঙ্গে যুক্ত হওয়ার মধ্যখানে যে দেশ উপস্থিত রয়েছে সে দেশটির নাম হচ্ছে তুরস্ক।

তুরস্কের বেশিরভাগ মানুষ মূলত এশিয়া মহাদেশ থেকেই উৎপত্তি হয়েছে এবং ধীরে ধীরে তুরস্কে বিস্তার ঘটিয়েছে জনসংখ্যা।

আর বর্তমানে এটি যদিও বা এশিয়া মহাদেশের অন্তর্ভুক্ত অঞ্চল হয়েছে কিছু ক্ষেত্রে কিন্তু তবুও ইউরোপের দিকে এর কিছু অংশ রয়েছে।

তুরস্কের রাজধানীর নাম কি?

আমাদের পৃথিবীতে মোট সাতটি মহাদেশ রয়েছে এবং এই সাতটি মহাদেশের মধ্যে এমন কিছু দেশ রয়েছে যেগুলো একাধিক মহাদেশে অবস্থিত। আর এই সকল দেশগুলোর মধ্যে তুরস্ক হচ্ছে অন্যতম একটি দেশ কেননা এটি দুইটি মহাদেশের মধ্যে সংযোগ স্থাপন করার মাধ্যমে অবস্থিত।

যেহেতু তুরস্ক দেশটি ইউরোপ এবং এশিয়া দুই মহাদেশের মধ্যে সংযোগ এনেছে তাই এটিকে সেতু হিসেবে বিবেচনা করা হয়েছে দুই মহাদেশের।

যাক এই বিষয় নিয়ে আমাদের এখন আর আলোচনা করার দরকার নেই চলুন জেনে নেই তুরস্কের রাজধানীর নাম কি?

তুরস্কের রাজধানীর নাম কি: তুরস্কের রাজধানী হলো আঙ্কারা এবং এটি আনাতোলিয়াতেই অবস্থিত যা এশিয়ার অংশ।

অর্থাৎ যেহেতু তুরস্কের রাজধানীসহ সিংহভাগ অংশ এশিয়া মহাদেশে অবস্থিত তাই বলা যায় তুরস্ক এশিয়া মহাদেশের অন্তর্ভুক্ত।

তাহলে তুরস্কের রাজধানীর নাম হলো আঙ্কারা এবং এই আংকারা তুরস্কের আনাতোলিয়া নামক স্থানে অবস্থিত একটি বিশেষ শহর।

তুরস্কের মূলত তুর্কি জনগোষ্ঠীর লোক বেশি খুঁজে পাওয়া যায় এবং এরা এখানে নিজস্ব বাসস্থানের সাথে সাথে পবিত্র স্থান গঠন করেছে।

পবিত্র স্থান গঠন করেছে বলতে বোঝানো হয়েছে যে তুরস্কেরা নিজস্ব ধর্ম অনুযায়ী পবিত্র ঘর নির্মাণ করেছেন নিজের ধর্মের উপর। আনাতোলিয়ার বেশিরভাগ মানুষ বর্তমানে তুর্কি মানুষের আনাগোনা হওয়ার কারণে ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেছে এবং পবিত্র স্থান গঠন করেছে।

শেষ কথা:

তুরস্ক কোন মহাদেশে অবস্থিত এ বিষয়টি নিয়ে অনেকেই অনেক বেশি দ্বিধার মধ্যে পড়ে যায় যে কোনটি সঠিক উত্তর হবে।

তবে যেহেতু তুরস্কের রাজধানীর নাম কি এই বিষয়ে উত্তরে জানতে পেরেছি, তুরস্কের রাজধানীর নাম হলো আঙ্কারা, যা আনাতোলিয়ায় অবস্থিত।

আর তুরস্কের রাজধানী অর্থাৎ তুরস্কের মূল শহর আঙ্কারা যেহেতু এশিয়া মহাদেশে অবস্থিত তাই বলা যায় তুরস্ক এশিয়া মহাদেশের অন্তর্ভুক্ত। আরে এই বিষয়টির উপর স্পষ্ট ব্যাখ্যা আমরা তখনই বলতে পারি যখন আমরা জানতে পারি তুরস্কের রাজধানীর নাম কি?

তাই আপনাকে সঠিক তথ্য প্রদানের জন্য আমরা এখানে সম্পূর্ণ চেষ্টা করেছি যেন আপনি বিবেচনা করতে পারেন তুরস্ক কোন মহাদেশে অবস্থিত।

আর আশা করা যায় যে আমাদের এই ব্যাখ্যা অনুযায়ী আপনারা বুঝতে পারলেন যে তুরস্ক হচ্ছে পূর্ব এশিয়ার অন্তর্ভুক্ত একটি দেশ।

তবে তুরস্কের যেহেতু কিছু অংশ ইউরোপ মহাদেশে অবস্থিত রয়েছে তাই এ বিষয়টি আমাদেরকে উপেক্ষা করলে চলবে না। অর্থাৎ যদি কখনো বহুপদী আকারে তুরস্ক কোন মহাদেশে অবস্থিত জানতে চায় এবং ইউরোপে ও এশিয়া দুইটির নাম দেওয়া থাকে তাহলে আপনি দুইটি দাগাবেন।

কেননা এটি সত্য যে তুরস্ক একটি মহাদেশে অবস্থিত নয় বরং তুরস্কের মহাদেশ হচ্ছে দুইটি একটি হচ্ছে ইউরোপ এবং অন্যটি এশিয়া।

তুরস্কের অধিকাংশ মানুষ তুর্কি ভাষায় কথা বলে এবং এদের মাঝে পরিপূর্ণরূপে তুর্কির সকল ঐতিহ্য বিদ্যমান রয়েছে।

আরও পড়ুন: পরিবেশ সংরক্ষণ কি?

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *