ছেলেদের কষ্টের স্ট্যাটাস | ছেলেদের নিয়ে কষ্টের কিছু কথা বাণী উক্তি ও ক্যাপশন

প্রিয় সুধী আসসালামু আলাইকুম, আশা করি ভাল আছেন আজকে আমরা ছেলেদের কষ্টের স্ট্যাটাস নিয়ে আপনাদের জানাবো। মূলত বিভিন্ন কারণে আমরা ছেলেরা ডিপ্রেশনের মধ্যে চলে যাই এবং এই ডিপ্রেশন কাটানোর জন্যই মূলত স্ট্যাটাস কার্যকর।

তাই বেশি দেরি না করে আপনার কষ্ট দূর করার জন্য এবং আপনাকে অনুপ্রেরিত করার জন্য কষ্টের স্ট্যাটাস গুলো দেখে নিন। আশা করি আপনি এই সকল স্ট্যাটাস গুলো পড়ার মাধ্যমে ফেসবুকে আপনার কষ্টগুলো বোঝাতে পারবেন এবং কিছুটা হালকা অনুভব করতে পারবেন।

ছেলেদের কষ্টের স্ট্যাটাস
Status: ছেলেদের কষ্টের স্ট্যাটাস

ছেলেদের কষ্টের স্ট্যাটাস: ছেলেদের কষ্টের কারণগুলো হলো ভালোবাসা, টাকা, আত্মসম্মান ও মূল্যবোধ, তাই সর্বদা চেষ্টা করবে এই সকল বিষয়গুলো বেশি করে অর্জন করার। তবে ভালোবাসা হচ্ছে এমন একটি বিষয় যেটা অর্জন করা অনেক বেশি কষ্টকর এবং বোঝাতে পারাও কষ্টকর।

ছেলেদের কষ্টের স্ট্যাটাস:

“একটা ছেলে তখনি কান্না করে,

যখন নিজের জীবন বাজি রেখে পরিবারের জন্য,

কঠোর পরিশ্রম করে যায়, অথচ তাকে বুঝার মতো,

কেউ থাকে না, হায়রে ছেলেদের জীবন।”

“ছেলেরা নিজেদের কষ্ট কাউকে বুঝতে দেয়ে না,

আর তাই হয়তবা, আজ বালিশগুলো নষ্ট হয়ে যাওয়ার মত।”

“দিন তো তাদেরি যে ছেলে, মধ্যবিত্ত পরিবারের না,

কারণ মধ্যবিত্ত পরিবারে ছেলে নয়, একটা বোঝা চেপে থাকে।”

“বেকারত্ব প্রত্যেকটি ছেলের জন্য একটি অভিশাপ,

কারণ পরিবার তাকে না আপন করে, না সাহায্য করে,

শুধু বকা আর কিছু বদদোয়া দিয়ে আশা নষ্ট করে ফেলে।”

“ছেলেরা এমনি বেকারত্ব দূর হওয়ার পরেও,

পরিবারের চাপে, কোন উৎসবে নিজের জামা কেনার,

বাজেট পরিবারের খুশিতে বিলিয়ে দিতে হয়।”

মধ্যবিত্ত ছেলেদের কষ্টের স্ট্যাটাস

মধ্যবিত্ত পরিবারে জন্মগ্রহণ করা ছেলেটা কি ধরনের অশান্তিতে ভুগতে পারে তা হয়তোবা উন্নত পরিবারে থাকা ছেলেটা বুঝেনা। আর তাই হয়তোবা সেই ছেলেটা আজ অনেক বেশি দুষ্টু এবং সেই সাথে অন্যের কথা না শুনে চলার একটি প্রতিভা পেয়ে গিয়েছে।

কিন্তু যাইহোক মধ্যবিত্ত ছেলেদের সান্ত্বনা দেওয়ার জন্য অবশ্যই তাকে এতে বুঝিয়ে দেওয়া যে সে একাই এই অশান্তিতে নেই। আর এই কষ্টটি সকলের জন্য বুঝিয়ে দেওয়ার জন্যই মূলত আজকে আমরা মধ্যবিত্ত ছেলেদের কষ্টের স্ট্যাটাস গুলো জানব।

মধ্যবিত্ত ছেলেদের কষ্টের স্ট্যাটাস:

“রাতের পর দিন আসবে এটা বলার মানুষ অনেক রয়েছে,

কিন্তু একটি মধ্যবিত্ত ছেলেকে এই বিষয়টি বুঝিয়ে দেওয়ার লোক নেই,

আর তাই হয়তোবা এই আশাটুকুও তার মন থেকে উঠে গেছে।”

“সান্তনা বিষয়টি ছেলেদের কপালে ভালো মতো কখনো জুটে না,

আর হয়তোবা এই কারণে মধ্যবিত্ত ছেলেরা সান্তনা নামক বিষয়টি,

নিজেই নিজেকে দিয়ে থাকে এবং অন্ধকারে কাঁদেতে থাকে।”

“কান্না বিষয়টি অন্যান্য লিঙ্গধারী মানুষের কাছে যতটুকু,

ততটুকু কান্না একটি মধ্যবিত্ত ছেলেদের চুল পরিমাণ হতে পারে না।।”

“একটি ছেলে জন্ম হয় কান্না করার মাধ্যমে এবং,

পরবর্তীতে পুরোটা জীবন একই নিয়মে কাটাতে হয়,

শুধুমাত্র পার্থক্য থাকলে প্রকাশ্য এবং গোপনে।”

ছেলেদের কষ্টের ক্যাপশন

মূলত ছেলেদের জীবনটা বেশী সহজ না কেননা, ভালো ক্যারিয়ার গঠন করতে না পারলে পায়না পরিবারের কোন শান্তি। আবার সেই সাথে পায়না কোন সমাজে থেকে সম্মান এবং কাছের মানুষগুলকে আপন করে আগলে ধরে রাখতে পারে না।

তবে যাই হোক এই সকল বিষয়ের উপর প্রত্যেকটি ছেলের জীবনে নানা ধরনের ডিপ্রেশন কাজ করে থাকে। আর এই ডিপ্রেশনগুলো বিভিন্ন স্ট্যাটাসের মাধ্যমে প্রকাশ করার জন্য মূলত ছেলেদের কষ্টের ক্যাপশন এ বিষয়টি নিয়ে আজকে হাজির হয়েছি।

ছেলেদের কষ্টের ক্যাপশন:

“না পায় ভালবাসার মানুষটিকে, না পায় সান্ত্বনা প্রদানকারী পরিবার,

হে ভাই এটাই মধ্যবিত্ত পরিবারের ছেলেদের lifestyle।”

“সান্ত্বনা যদি হয় ছেলেদের, তাহলে এটা পুরাই সবপ,

কারণ বাস্তবে সান্ত্বনা ছেলেদের অনুভূতিতেই আসেনা।”

“কষ্টের কথা যদি বলতে হয় তাহলে এই কষ্ট শুধুমাত্র পরিশ্রমে থাকে না,

বরং ছেলেদের কষ্ট, জীবন বাজি রাখার মাধ্যমে অতিবাহিত হয়,

শখের জীবন অতিবাহিত হয় কিন্তু জীবনের শখ পূরণ হয় না।”

“ছেলেদের বয়স অনুযায়ী জাগ্রত হয়ে অনুভূতি ও শখ,

কিন্তু জাগ্রত হওয়া এই অনুভূতি ও শখ কখনোই পূর্ণ হতে পারে না,

তার আগেই পরিবারের দিকে তাকিয়ে আশা অন্যের পূরণ করতে হয়।”

এগুলো ছিল কিছু অনুপ্রেরণামূলক ছেলেদের কষ্টের স্ট্যাটাস এবং কখনোই নিজেকে উদাসীন বা মন খারাপ আছে এমন মনে করো না। কেন শুধুমাত্র তুমি নয় বড় পুরো পৃথিবীতে অবস্থান করে প্রত্যেকটি নির্দিষ্ট বয়স ধারে ছেলেরা এই ডিপ্রেশনের মধ্যে থাকে, তাই স্বাভাবিক চিন্তা কর।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Scroll to Top