ইন্ডিয়ার জাতীয় পশুর নাম কি?

ইন্ডিয়ার জাতীয় পশুর নাম কি:  ইন্ডিয়ার জাতীয় পশুর নাম হলো রয়েল বেঙ্গল টাইগার বা বাঘ।  আমরা ধারণা করে থাকি কিংবা আমরা মনে করে থাকি যে বাঘ শুধুমাত্র বাংলাদেশেরই জাতীয় প্রাণী কিন্তু এ কথাটি সঠিক নয় বাংলাদেশ সহ আরব বেশ কয়েকটি দেশের জাতীয় প্রাণী হিসেবে স্বীকৃতি পেয়েছে।

এবার ১২ রয়েল বেঙ্গল টাইগার এর বৈজ্ঞানিক নাম হচ্ছে প্যান্থেরা টাইগ্রিস যা ইংরেজিতে উচ্চারণ করলে হয় Panthera tigris. প্রতিটি প্রাণীর যেমন বৈজ্ঞানিক নাম রয়েছে ঠিক তেমনি ভাবে বাঘের বৈজ্ঞানিক নাম রয়েছে এবং এটি থাকা স্বাভাবিক।

ইন্ডিয়ার জাতীয় পশুর নাম কি
ইন্ডিয়ার জাতীয় পশুর নাম কি

 এটি প্রশ্ন হয়ে থাকে যে কেন একটি প্রাণীকে জাতীয় পশু হিসেবে বিবেচনা করা হয় বা জাতীয় পশুর খেতাব দেওয়া হয়। তো তাদের জন্য আজকে আমার এই পোস্টটি এই পোস্টের মধ্যে আপনি এই বিষয়টি সম্পর্কে ভালোভাবে জানতে পারবেন এবং বুঝতে পারবেন।

আপনি এখানে এটিও জানতে পারবেন যে ইন্ডিয়ার জাতীয় পশু আগে কি ছিল এবং বর্তমানে কি রয়েছে এবং এটি কেন রয়েছে।

সেই সাথে বাহাকেকে জাতীয় পশু করার কারণ এবং বিবরণ সহ আপনি ভালোভাবে জানতে পারবেন এবং বুঝতে পারবেন।

বাঘকে কেন ইন্ডিয়ার জাতীয় পশু করা হলো

বিড়াল জাতের মধ্যে উপস্থিতি চারটি জাতের মধ্যে সবচেয়ে বড় হলো বাঘ  আর এই বাঘ কিন্তু অনেক বেশি শক্তিশালী।

ভারত দেশটির মধ্যে মোট আট ধরনের বাঘ পাওয়া যায় আর এদের মধ্যে রয়েল বেঙ্গল টাইগার হচ্ছে অন্যতম।

এর আগে ১৯৭৩ সাল পর্যন্ত ইন্ডিয়ার জাতীয় পশু হিসেবে স্বীকৃতি দেওয়া হয়েছিল সিংহকে বা সিংহ ছিল ইন্ডিয়ার জাতীয় পশু। এরপরে হিসাব করা হয় এবং হিসাব করে দেখা যায় যে পুরো বিশ্বের মধ্যে বাঘের সংখ্যা অনেক কমে আসছে।

তাই তখন বাঘের সংখ্যা বৃদ্ধি করার জন্য একটি প্রজেক্ট চালু করা হয় যার নাম ছিল সেভ টাইগার মানে বাঘ বাঁচাও।

আর এই সময় তখন বাঘকে ইন্ডিয়ার জাতীয় পশু হিসেবে ঘোষণা দেওয়া হয় এবং বাঘের হেফাজতের দায়িত্ব দেওয়া হয়।

আর তখন থেকেই ইন্ডিয়ার জাতীয় পশুর নাম কি এই প্রশ্নের উত্তর করা হলো রয়েল বেঙ্গল টাইগার বা বাঘ।

তাছাড়া দেখলে দেখা যায় যে ইন্ডিয়ার ১৬ টি রাজ্যের মধ্যে বাঘ পাওয়া যায় কিন্তু সিংহ পাওয়া যায় শুধুমাত্র গুজরাটে।

আর এর উপর ভিত্তি করেই বাঘাকে ভারতের জাতীয় পশু হিসেবে বিবেচনা করা হয় এবং খেতাব দেওয়া হয়।

আরো পড়ুন: বাংলাদেশের জাতীয় পশুর নাম কি?

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *